লড়াইয়ে হার প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় শোকের ছায়া রাজনৈতিক মহলে

আমারআসামপ্রতিবেদন, ৩১ অগাস্ট, সোমবার:-

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মস্তিষ্কে জমাট বাঁধা রক্ত, দোসর হয়েছিল করোনা ভাইরাস। তারপর থেকেই কোমায় চলে গিয়েছিলেন। কঠিন লড়াইয়ে শেষ পর্যন্ত হার মানতে হল। প্রয়াত দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। সোমবার সন্ধেবেলা দিল্লির সেনা হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর। ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় টুইট করে খবর দেওয়া মাত্রই শোকাহত গোটা দেশ। নিস্তব্ধ তাঁর গ্রাম বীরভূমের কীর্ণাহার।
জাতীয় রাজনীতিতে ফের এক নক্ষত্রপতন। দীর্ঘদিন ধরে রাজনৈতিক, প্রশাসনিক, সাংবিধানিক নানা দায়িত্ব পালন শেষে বিদায় নিয়েছিলেন সেসব পদ থেকে। তবু অভিভাবকের মতো আশ্রয় হয়ে ছিলেন দলমত নির্বিশেষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃত্বের কাছে। কিন্তু এবার সব ছেড়ে চিরবিদায় নিলেন প্রণব মুখোপাধ্যায় ।
করোনা আক্রান্ত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির শারীরিক পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছিল সোমবার থেকেই। রবিবার তিনি নিজের বাড়িতে পড়ে যান।

মাথায় আঘাত লাগে, অবশ হতে থাকে বাঁ হাতও। সোমবার তাই দিল্লির সেনা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। চিকিৎসকরা পরীক্ষা করে জানান, দ্রুতই অস্ত্রোপচার দরকার। অস্ত্রোপচারের জন্য প্রয়োজনীয় পরীক্ষা করতে গিয়ে বোঝা যায়, প্রণব মুখোপাধ্যায়ের শরীরে বাসা বেঁধেছে করোনা ভাইরাস (Coronavirus)। সেই খবর তিনি নিজেই টুইট করে জানিয়েছিলেন।  ৮৪ বছর বয়সে এই জীবাণুর থাবা থেকে নিরাপদে অস্ত্রোপচার করে সুস্থ করে তোলাটা চিকিৎসকদের কাছে চ্যালেঞ্জ ছিল। সেই চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েই তাঁর  মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচার করা হয়। তারপরই তাঁকে ভেন্টিলেশনে দেওয়া হয়। প্রাক্তন রাষ্ট্রপতিকে হাসপাতালে দেখতে যান প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং। আশঙ্কা আর উদ্বেগ বাড়ছিল এই জায়গা থেকেই। মঙ্গলবার সন্ধে নাগাদ চিকিৎসকরা জানান,  শারীরিক অবস্থা সংকটজনক প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির।উদ্বেগের পারদ চড়তে থাকে। সবশেষে খবর আসে, জীবনযুদ্ধে হার মেনেছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়। তাঁর প্রাণবায়ু নিভে গিয়েছে। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *