আসন্ন বিধানসভা নির্বাচন, উত্তর করিমগঞ্জ সমষ্টির প্রত্যাশীদের তৎপরতা তুঙ্গে।

আমার আসাম প্রতিবেদন, ৩১ অক্টোবর, শনিবার:

আগামী বিধানসভা নির্বাচন ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে শাসক বিরোধীর রাজনৈতিক তৎপরতা তুঙ্গে।
অন্যদিকে রাজ্যের রাজনৈতিক সব থেকে বড় চর্চার বিষয় হতে দাড়িয়েছে কংগ্রেস এ আই ইউ ডি এফের   মিত্রতা প্রসঙ্গ।যদি মিত্রতা হয় উত্তর করিমগঞ্জ আসন চলে যাবে কংগ্রেসের হতে। কংগ্রেস দলের দুইবারের বিধায়ক কমলাক্ষ দে পুরকায়স্থ ই হবেন মিত্র জুটের প্রার্থী তা নিশ্চিত। উত্তর করিমগঞ্জ সমষ্টির এক বৃহৎ সংখ্যক সংখ্যালঘু মানুষ সংখ্যালঘু প্রার্থী  দাবি করছেন।

অন্য দিকে উত্তর করিমগঞ্জে কয়েকদিন থেকে শুরু হওয়া কংগ্রেসের জিপি ভিত্তিক কর্মীসভার কার্য্যপ্রনালী শুরু করা হয়েছে , সেই অনুসারে গত কাল  সাদারাশী জিপির কর্মী সভা অনুষ্ঠিত হয়।

অন্যদিকে বিজেপি সরকারের কাম কাজ ও বিভিন্ন প্রকল্প দেখিয়ে গ্রামে গ্রামে যাচ্ছেন প্রাক্তন বিধায়াক মিশন রঞ্জন দাস ও বিজেপি নেতা মানস দাস। মন্ডল কমিটি, জিপি কমিটি, যুব মার্চ সহ বিজেপির সব সংগঠন নিয়ে কর্মী সভা  করে  সংগঠন মজবুত করছেন তারা।

অন্যদিকে সাহাবুল ইসলাম চৌধুরী কে নিয়ে প্রান্তে প্রান্তে চষে বেড়াচছেন তার সমর্থকরা। সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ে এক বৃহৎ অংশ নিয়ে পক্ষে নিতে সক্ষম পারুল চৌধুরী।

উত্তর করিমগঞ্জ আগামী বিধানসভায় তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হাওয়ার সম্ভবনা প্রবল। বিজেপি থেকে সমষ্টিতে প্রার্থী হাওয়ার দৌড়ে রয়েছে মিশন রঞ্জন দাস ও ডক্টর মানস দাস। অন্যদিকে বর্তমান বিধায়াক কংগ্রেস জুটের প্রার্থী হচ্ছেন তাহা এক প্রকার নিশ্চিত। অন্যদিকে সংখ্যালঘু সম্প্রয়ায়ের এক বৃহৎ সংখ্যক লোক শাহাবুল ইসলাম চৌধুরী (পারুল) কে প্রতিদ্বন্দ্বী হিসাবে দেখতে চায়। সেই হিসাবে সমষ্টি তে ত্রিমুখী লড়াই হচ্ছে এক প্রকার নিশ্চিত। উত্তর করিমগঞ্জ সমষ্টির আগামী বিধায়ক কে হচ্ছেন তাহা দেখতে অপেক্ষা করতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *